Menu
Menu

‘অন্ধকারাচ্ছন্ন শীতকালের’ মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র: পদচ্যুত কর্মকর্তা

Share on facebook
Share on google
Share on twitter

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।
যুক্তরাষ্ট্রের পদচ্যুত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রিক ব্রাইট মার্কিন কংগ্রেসে দেওয়া সাক্ষ্যে বলেছেন, করোনাভাইরাসের কারণে দেশটি ‘আধুনিক সময়ের সবচেয়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন শীতকালের’ মুখোমুখি হতে পারে। তিনি সতর্ক করে আরও বলেছেন, শীতে সংক্রমণের ‘পুনরুত্থান’ হতে পারে। বৃহস্পতিবার তিনি মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের সদস্যদের নিয় স্বাস্থ্যবিষয়ক সাব কমিটির কাছে দেওয়া সাক্ষ্যে এসব কথা বলেন তিনি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কারে সরকারি স্বাস্থ্য সংস্থার প্রচেষ্টার নেতৃত্বে ছিলেন রিক ব্রাইট। কিন্তু তাকে গত মাসে তার পদ থেকে অপসারণ করা হয়। তিনি মন্তব্য করেছিলেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশিত পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা করার বিষয়ে মানুষকে সতর্ক করাতেই তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট তাকে ‘অসন্তুষ্ট কর্মী’ হিসেবে অভিহিত করে তার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন।

সাক্ষ্যে রিক ব্রাইট বলেছেন, ‘বহু প্রাণহানি হয়েছে’ কারণ প্রাদুর্ভাবের শুরুর দিকে সরকার ‘নিষ্ক্রিয়’ ভূমিকা পালন করেছে। উপকরণের ঘাটতির কথা জানিয়ে জানুয়ারিতে তিনি ‘সর্বোচ্চ পর্যায়ের’ দৃষ্টি আকর্ষণ করলেও তাদের কাছ থেকে ‘কোনও সাড়া পাননি’।

সাবেক স্বাস্থ্য কর্মকর্তার অভিযোগ, কংগ্রেসের বরাদ্দ করা অর্থ ‘প্রতিষেধক বা অন্য প্রযুক্তি, যেগুলোর সম্পূর্ণ বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই, সেগুলোর পেছনে ব্যয় না করে বৈজ্ঞানিকভাবে সমর্থিত প্রক্রিয়ার উন্নয়নে খরচ করা প্রয়োজন’ বলে মত দেওয়ার কারণে তাকে তার পদ থেকে অপসারণ করা হয়। তিনি বলেন, ‘আমি তখনও বলেছি এবং এখনও পুনরাবৃত্তি করছি, কারণ এই ভয়াবহ ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেতৃত্ব দেওয়া উচিত বিজ্ঞানের- রাজনীতির নয়।’

বক্তব্য দেওয়ার সময় রিক ব্রাইট সতর্ক করেন, করোনাভাইরাস নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ‘কাজ করার সুযোগ’ দিন দিন বন্ধ’ হয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আমরা যদি বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে এখনই যথাযথ পদক্ষেপ নিতে না পারি তাহলে এই মহামারি আরও খারাপ পর্যায়ে যাবে এবং দীর্ঘায়িত হবে। নিখুঁত পরিকল্পনা না করা হলে ২০২০ সালের শীতকাল হতে পারে আধুনিক সময়ের ইতিহাসের সবচেয়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন শীত।’

এ মাসের শুরুতে অভ্যন্তরীণ তথ্য ফাঁস করে রিক ব্রাইট অভিযোগ তোলেন, বায়োমেডিকেল অ্যাডভান্সড রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটির পরিচালকের পদ থেকে তাকে অপসারণের সিদ্ধান্তটি ছিল রাজনৈতিক। ব্রাইট বলেন, ক্লোরোকুইন নিয়ে একটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হওয়ার কিছুদিন পরই তাকে দায়িত্বচ্যুত করা হয়।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওই সময় বলেছিলেন, ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন কোভিড-১৯ এর সম্ভাব্য ওষুধ হিসেবে কাজ করতে পারে। যদিও অনেক বিশেষজ্ঞই এই ওষুধকে অকার্যকর, এমনকি ক্ষতিকর হিসেবেও চিহ্নিত করেছেন।

ব্রাইট অভিযোগ করেন, সরকারি কর্মকর্তারা তার ‘সতর্কবার্তা শুনতে অস্বীকৃতি’ জানানোর ফলে একজন সাংবাদিকের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এর ফলে চাকরি হারাতে হয়েছে তাকে।

সর্বশেষ