রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৪৯ পূর্বাহ্ন
৩ মাঘ, ১৪২৭

সংবাদ শিরোনাম:
সিরাজগঞ্জে বিএনপি সমর্থিত বিজয়ী কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা উগান্ডার বিতর্কিত নির্বাচনে ‘বিজয়ী’ ক্ষমতাসীন মুসেভিনি ‘মসুল’ সিনেমার শিল্পীদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে আইএস ঢাকা যাওয়ার জন‌্য লঞ্চঘাটে এসে পা হারালেন নারী ডাবল সেঞ্চুরি ফর্মে ফেরালো রুটকে দেশীয় টিকা নিতে চান না ভারতীয় চিকিৎসকদের একাংশ গাইবান্ধায় পুলিশ-র‍্যাবের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষ আগৈলঝাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ গ্রেফতার ৪ আগৈলঝাড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত, আহত ৪ গৌরীপুরে মায়ের মমতা কল্যাণ সংস্থা’র শীতবস্ত্র বিতরণ ময়মনসিংহে আ. লীগ নেতা শরীফ হাসান অনু’র রোগমুক্তি কামনা মির্জাগঞ্জে কেন্দ্রীয় মসজিদের স্থানে মডেল মসজিদ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন চরফ্যাশনে আধুনিক মসজিদ পরিদর্শনে অতিরিক্ত সচিব ফাইজারের ভ্যাকসিন নেয়ার পর নরওয়েতে ২৩ জনের মৃত্যু ৪ দফা দাবি: বরিশাল-কুয়াকাটা সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের অবরোধ ‘সুষ্ঠুভাবে করোনার ভ্যাকসিন প্রদানে সরকার বদ্ধ পরিকর’ পায়রা বন্দরের চ্যানেল নব্যতা বজায় রাখতে ড্রেজিং উদ্বোধন সারাদেশে আলোচিত কাদের মির্জা বিপুল ভোটে জয়ী মঠবাড়িয়ায় যুবলীগের দুই প্রেসিডিয়াম সদস্যকে সংবর্ধনা বাবাকে ভোট দিতে গিয়ে মানিক জানলো সে আর ‘বেঁচে’ নেই
Dr. Ali Hasan
Dr. Jahidul Islam
গড় মূল্যস্ফীতি আগের বছরের চেয়ে বেড়েছে

গড় মূল্যস্ফীতি আগের বছরের চেয়ে বেড়েছে

অনলাইন ডেস্ক।।
২০২০ সালে মূল্যস্ফীতি বা জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধির হার আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে। জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত গড় মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৫ দশমিক ৬৯ শতাংশ। ২০১৯ সালে যা ছিল ৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ। আর ২০১৮ সালে গড় মূল্যস্ফীতি ছিল ৫ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

অবশ্য মাসের হিসাবে সর্বশেষ গত ডিসেম্বরে পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে মূল্যস্ফীতির হার আগের মাসের চেয়ে কমেছে। ডিসেম্বরে মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ২৯ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ৫ দশমিক ৫২ শতাংশ। নভেম্বরে মূল্যস্ফীতি ছিল গত বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। গেল বছর নিত্যপণ্যের বাজারে চাল ও পেঁয়াজের দর সবচেয়ে আলোচিত ছিল। চালের দাম এখনও ক্রেতাদের ভোগাচ্ছে। তবে পেঁয়াজের দাম কমছে।

মঙ্গলবার (০৫ জানুয়ারি) পরিকল্পনা কমিশনে একনেক বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মূল্যস্ফীতির সর্বশেষ পরিসংখ্যান উপস্থাপন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। ২০০৫-০৬ অর্থবছরকে ভিত্তিবছর (১০০ পয়েন্ট) ধরে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো ( বিবিএস) মূল্যস্ফীতির পরিসংখ্যান তৈরি করে।

পয়েন্ট টু পয়েন্ট মূল্যস্ফীতি হচ্ছে আগের বছরের নির্দিষ্ট কোনো মাসের ভোক্তা মূল্যসূচকের তুলনায় পরের বছরের একই মাসে ওই সূচক যতটুকু বাড়ে তার শতকরা হিসাব। অন্যদিকে ১২ মাসের পয়েন্ট টু পয়েন্ট মূল্যস্ফীতির গড় করে গত এক বছরের গড় পরিসংখ্যান বের করা হয়। খাদ্য এবং খাদ্যবহির্ভূত বিভিন্ন পণ্য ও সেবার মূল্য নিয়ে বিবিএস মূল্যস্ফীতির হিসাব করে থাকে।

গড় মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় অর্থবছরের ভিত্তিতে। চলতি অর্থবছরে এটি সাড়ে ৫ শতাংশে সীমিত রাখার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। এবার সর্বাধিক মূল্যস্ফীতি হয় গত অক্টোবর মাসে ৬ দশমিক ৪৪ শতাংশ।

বিবিএসের হিসাবে ডিসেম্বরে খাদ্যসূচকে মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ। নভেম্বরে এ সূচকে মূল্যস্ফীতি ছিল ৫ দশমিক ৭৩ শতাংশ। তবে খাদ্যপণ্যে কমলেও খাদ্যবহির্ভূত পণ্যে মূল্যস্ফীতি কিছুটা বেড়েছে। খাদ্যবহির্ভূত সূচকে ডিসেম্বরে মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ২১ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ৫ দশমিক ১৯ শতাংশ।

দ্রুত নিউজ পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করে সি ফাস্ট করে রাখুন
নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

royal city hospital



© All rights reserved © 2019 rupalibarta.com
Developed By Next Barisal