রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন
৩ মাঘ, ১৪২৭

সংবাদ শিরোনাম:
সিরাজগঞ্জে বিএনপি সমর্থিত বিজয়ী কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা উগান্ডার বিতর্কিত নির্বাচনে ‘বিজয়ী’ ক্ষমতাসীন মুসেভিনি ‘মসুল’ সিনেমার শিল্পীদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে আইএস ঢাকা যাওয়ার জন‌্য লঞ্চঘাটে এসে পা হারালেন নারী ডাবল সেঞ্চুরি ফর্মে ফেরালো রুটকে দেশীয় টিকা নিতে চান না ভারতীয় চিকিৎসকদের একাংশ গাইবান্ধায় পুলিশ-র‍্যাবের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষ আগৈলঝাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ গ্রেফতার ৪ আগৈলঝাড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত, আহত ৪ গৌরীপুরে মায়ের মমতা কল্যাণ সংস্থা’র শীতবস্ত্র বিতরণ ময়মনসিংহে আ. লীগ নেতা শরীফ হাসান অনু’র রোগমুক্তি কামনা মির্জাগঞ্জে কেন্দ্রীয় মসজিদের স্থানে মডেল মসজিদ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন চরফ্যাশনে আধুনিক মসজিদ পরিদর্শনে অতিরিক্ত সচিব ফাইজারের ভ্যাকসিন নেয়ার পর নরওয়েতে ২৩ জনের মৃত্যু ৪ দফা দাবি: বরিশাল-কুয়াকাটা সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের অবরোধ ‘সুষ্ঠুভাবে করোনার ভ্যাকসিন প্রদানে সরকার বদ্ধ পরিকর’ পায়রা বন্দরের চ্যানেল নব্যতা বজায় রাখতে ড্রেজিং উদ্বোধন সারাদেশে আলোচিত কাদের মির্জা বিপুল ভোটে জয়ী মঠবাড়িয়ায় যুবলীগের দুই প্রেসিডিয়াম সদস্যকে সংবর্ধনা বাবাকে ভোট দিতে গিয়ে মানিক জানলো সে আর ‘বেঁচে’ নেই
Dr. Ali Hasan
Dr. Jahidul Islam
চিরকুট লিখে আত্মহত্যা বন্ধ হবে কবে?

চিরকুট লিখে আত্মহত্যা বন্ধ হবে কবে?

মামুন সোহাগ।।
তরুণপ্রাণ আবেগী। সামান্য কিছুতেই তরুণরা হতাশায় ভোগেন, দুমড়েমুচড়ে যান। দিনশেষে আত্মহননের পথ বেছে নেন। অধিকাংশই বোঝেন না, বিভিন্ন পরিস্থিতির কারণে কেন মানুষ বিষণ্ন হয়ে পড়ে। জানেন না সিচুয়েশনাল অথবা ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশনের কথা। আত্মহত্যার জন্য যে পদ্ধতিগুলোর ব্যবহার সবচেয়ে বেশি; সেগুলো হলো- কীটনাশক খাওয়া, ফাঁসিতে ঝোলা কিংবা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার। বিশ্বে এ প্রবণতা একই রকম।

পৃথিবীতে ১৫-২৯ বছর বয়সীদের মধ্যে আত্মহত্যাই মৃত্যুর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কারণ। প্রতিদিন পত্রপত্রিকায় অহরহ মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। যার অধিকাংশই প্রেমে ব্যর্থতা, বেকারত্ব, পারিবারিক কলহ, পরীক্ষায় অকৃতকার্য, মানসিক সমস্যা, হতাশাসহ বিভিন্ন কারণে ঘটে থাকে।

একটু লক্ষে করলেই দেখতে পাই, প্রতিনিয়তই আমাদের দেশে আত্মহত্যার হার দিন দিন বেড়েই চলেছে। আবেগী তরুণ-তরুণীর একটা বৃহদাংশ ইদানিং ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করছেন। অতি সম্প্রতি ঘটে যাওয়া দেশের কয়েকটি আত্মহত্যার চিত্র তুলে ধরছি-

১. প্রেমিকের আত্মহত্যার তিন দিনের মাথায় প্রেমিকার আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কাতলামারি গ্রামে। গত ০৩ ডিসেম্বর সোমবার প্রেমিক সুমন বিশ্বাস আত্মহত্যা করার পর বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন প্রেমিকা মিনা। আসা-যাওয়ার পথে একই গ্রামের মকবুল হোসেনের স্ত্রীর অপরপক্ষের মেয়ে মিনা আক্তারের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে সুমনের।

২. প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ক্ষোভে, দুঃখে ও হতাশায় সিলেটে এক যুবক ফেসবুক লাইভে এসে আত্মহত্যা করেছেন। তবে কেন তিনি প্রকাশ্যে এসে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটালেন, তারও কিছুটা ইঙ্গিত জানিয়ে গেছেন ফেসবুকের এক স্ট্যাটাসে। গত ০৪ নভেম্বর রাত ৯টার দিকে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের মোগলাবাজার থানার আলমপুরের ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে। এতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা ও ক্ষোভ দেখা দেয়।

৩. প্রেমিকের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মনীষা হীরা আত্মহত্যা করেছেন। ১১ অক্টোবর শনিবার রাতে শহরের সবুজবাগের বাসায় সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন। মনীষা হীরা শহরের চাঁদমারী রোডের সবুজবাগ এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন। তার বাবার নাম তুষার হীরা।

৪. আত্মহত্যা করেছেন দেশের নতুন প্রজন্মের মডেল ও অভিনেত্রী লরেন মেন্ডেস। গত ৩০ আগস্ট সকাল আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে নিজ বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে এ উঠতি মডেল আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে তার পরিবার। তবে কী কারণে লরেন আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন, বিষয়টি এখনো রহস্যাবৃত।

৫. নাটোরের বড়াইগ্রামে করোনা পরিস্থিতিতে চাকরি হারিয়ে গত ১১ জুলাই জেনি বেবি কস্তা নামে এক তরুণী আত্মহত্যা করেছেন। খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ভুক্ত ওই তরুণী আত্মহত্যার আগে একাধিক স্ট্যাটাসে আত্মহত্যার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। শনিবার বিকেলে উপজেলার মাঝগাঁও ইউনিয়নের বাহিমালি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জেনি বাহিমালি গ্রামের মৃত আব্রাহাম কস্তার মেয়ে।

এ ছাড়া বলিউড নায়ক সুশান্ত সিং রাজপুতও চলে গেলেন একই ভাবে। নেপালে মার্চ থেকে শুরু হওয়া লকডাউনের প্রথম ৭৪ দিনে আত্মহত্যা করেছেন ১,২২৭ জন। ভারতে ৯ জন শ্রমিক কাজ হারিয়ে একসঙ্গে কুয়ায় লাফিয়ে পড়ে মারা গেলেন। ১২ বছরের বাচ্চাকে বাবা বকেছে বলে রাগে-দুঃখে ফ্যানে ঝুলে পড়ল। এসএসসিতে ভালো নম্বর না পাওয়ায় ১০ শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০-১২ জন ছাত্রছাত্রী পরপর আত্মহত্যা করলেন। বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক দিতে না পারায় দুঃখে গৃহবধূ গলায় ফাঁস দিলেন।

মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের তথ্যমতে, বাংলাদেশে গড়ে প্রতিবছর ১০ হাজার মানুষ আত্মহত্যা করে। মনোবিজ্ঞানীরা বলেন, আত্মহত্যা দু’ধরনের হয়, যেমন- পরিকল্পিত এবং আবেগতাড়িত হয়ে বা কোনো ঘটনার প্রেক্ষিতে। সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে চরম বিষণ্নতা বা ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশন থেকে। অধিকাংশ মানুষ খুব একটা পরিকল্পনা করে আত্মহত্যা করেন না। বিষণ্নতা থেকে আবেগ তৈরি হয়, আশা চলে যায়, অন্য কোনো উপায় খুঁজে পায় না মানুষ, একমাত্র উপায় হয় তখন নিজের জীবন নিয়ে নেওয়া। আত্মহত্যার অর্ধেক কারণ হচ্ছে বিষণ্নতা বা অবসাদ।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, সরকারি তথ্য অনুযায়ী দেশের সবচেয়ে বেশি মানুষ আত্মহত্যা করেন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলা ঝিনাইদহে। যারা আত্মহত্যা করেন; তাদের বেশিরভাগ অল্প বয়সী এবং নারী। ঝিনাইদহে এখন সরকারি ও বেসরকারিভাবে আত্মহত্যার প্রবণতা ঠেকাতে নানা রকম উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

করোনায় গোটা বিশ্ব টালমাটাল। মৃত্যু আর আক্রান্তের সংখ্যা যেন বেড়েই চলেছে। এর মাঝে পত্রিকার একটি শিরোনাম দেখে চোখ কপালে ওঠে। ‘করোনায় মৃত্যুর চেয়ে জাপানে বেশি মানুষ আত্মহত্যা করে’। জাপানের ন্যাশনাল পুলিশ এজেন্সিকে উদ্ধৃত করে সিএনএন এবং ফক্স নিউজ জানিয়েছে, শুধু অক্টোবরে ২ হাজার ১৫৩ জন আত্মহত্যা করেছেন। আর চলতি বছরে নিজেকে শেষ করে দেওয়া মানুষের সংখ্যা ১৭ হাজারের বেশি!

এ তুলনায় করোনাভাইরাসে ‘অনেক কম’ মানুষ মারা গেছেন। চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া রোগে দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬,৮৩৮ জনের প্রাণ গেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দীর্ঘ লকডাউনে পরিবার থেকে দূরে থাকতে থাকতে অনেকেই হতাশায় ডুবে যাচ্ছেন। এর ভেতর যোগ হচ্ছে অর্থনৈতিক চিন্তা। গ্রাস করছে বেকারত্ব।

রবীন্দ্রনাথ আকুল হয়ে বলেছিলেন, ‘মরিতে চাহি না আমি সুন্দর ভুবনে।’ অথচ এ সুন্দর ভুবন ছেড়ে চলে যেতে অনেকেই করেন তাড়াহুড়া, করেন আত্মহত্যা। ইসলামও কিন্তু কোনো অবস্থাতেই আত্মহত্যাকে সমর্থন করে না। অন্যান্য ধর্মেও আত্মহত্যা মহাপাপ। কিশোর-কিশোরীদের আত্মহত্যার জগত থেকে দূরে সরিয়ে আনতে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সচেতনতামূলক প্রচারণা, অনুপ্রেরণামূলক গল্প প্রচারের পাশাপাশি দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখা জরুরি।

লেখক-শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যমকর্মী।

দ্রুত নিউজ পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করে সি ফাস্ট করে রাখুন
নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

royal city hospital



© All rights reserved © 2019 rupalibarta.com
Developed By Next Barisal