বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:৩৭ অপরাহ্ন
১২ ফাল্গুন, ১৪২৭

সংবাদ শিরোনাম:
বরিশালে চিকিৎসকের স্ত্রীর অমানসিক নির্যাতনে হাসপাতালে শিশু গৃহকর্মী আগৈলঝাড়ায় নেছারিয়া এতিমখানার ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিক পরিবারকে কুপিয়ে জখম, রাজপথে গণমাধ্যমকর্মীরা নিহতের হৃৎপিণ্ড কেটে আলু দিয়ে রান্না করে খেলেন খুনি! ‘বউকে ফেরত চাচ্ছি না, তার মুখোশ খুলে দিতে চাই’ টিকা নেয়ার ১২ দিন পর ত্রাণ সচিব করোনায় আক্রান্ত যে পাখির অর্ধেক পুরুষ আর অর্ধেক নারী! সারারাত প্রেমিকার সঙ্গে ফোনে কথা, ভোরে মিললো প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ হিজলায় সড়ক দুর্ঘটনায় শ্রমিক ইউনুসের মৃত্যু, আহত ৩ ‘দেশের অবহেলিত আলীয়া মাদ্রাসা’ ফাঁকা মাঠে ভাষণ দিচ্ছেন বিজেপি নেতা, ছবি ভাইরাল সুনামগঞ্জে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় চিরনিদ্রায় শায়িত বীরমুক্তিযোদ্ধা বজলুল মজিদ খসরু আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ চায় সেনাবাহিনী কলাপাড়ায় এমপি পুত্রের বিরুদ্ধে জমি দখল করে মাছের ঘের করার অভিযোগ বরিশাল বিএম কলেজে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, পরীক্ষা নেয়ার দাবি যেভাবে ধরা পড়লো বরিশাল সিটি করপোরেশনের ভূয়া কর্মকর্তা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার যৌক্তিকতা কোথায়: ন্যাপ ছাতক অনলাইন প্রেসক্লাব কমিটি গঠন ছাতকে গরু চুরি ঘটনায় হামলা: অতঃপর ধর্ষণ চেষ্টা মামলা! কুয়াকাটায় ১৬ মণ জাটকা ইলিশ জব্দ
Dr. Ali Hasan
Dr. Jahidul Islam
ঢাকায় ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে গরুর মাংস!

ঢাকায় ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে গরুর মাংস!

অনলাইন ডেস্ক।।
রাজধানীতে মানুষের ব্যয় বহুল জীবন-যাপন করতে হয়। আর ব্যয় বহুল জীবন-যাপন করতে গিয়ে অনেক নিম্নবিত্ত পরিবার গরুর মাংস খেতে পারেন না। নিম্নবিত্ত পরিবারের জন্য ৫০ টাকায় গরুর মাংস বিক্রি করা হচ্ছে রাজধানীর মিরপুরে। মিরপুর-১২ নম্বরের ই-ব্লকের ৩৩ নম্বর সড়কের পশ্চিম দিকে বিহারি পট্টিতে ছোট একটি মাংসের দোকান। সেখানে গেলেই চোখে পড়ে ‘ভাতিজা শাহিদ ও শরিফের দোকান’ নামের দোকানটি। এখানেই গরু ও মুরগির মাংস বিক্রি করেন দুই ভাই শরিফ ও নবাব। সপ্তাহের প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত চলে বিকিকিনি।

প্রতিদিন দোকানটিতে ১৩-১৪ হাজার টাকার মাংস বিক্রি করেন দুই ভাই। কথা হয় মাংস বিক্রেতা শরিফের সঙ্গে। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, গরুর মাংসের দাম যেখানে প্রায় ৬০০ টাকা সেখানে তিনি কীভাবে ৫০ টাকায় মাংস বিক্রি করেন? উত্তরে তিনি জানান, যাদের মাংস খেতে খুব ইচ্ছে করে কিন্তু দাম বেশি হওয়ায় কিনতে পারেন না-মূলত তারাই এখানে মাংস কেনেন। ১৫ বছর ধরে তাদের এই দোকানটি। তার বাবা এক সময় দোকানটি চালাতেন। তখন থেকে তিনিও এভাবে মাংস বিক্রি করতেন।

গত ৫ বছর ধরে দুই ভাই দোকানটি পরিচালনা করেন। তারাও বাবার দেখানো পথে এভাবে মাংস বিক্রি করেন। তারা সাত ভাই ও এক বোন। সঙ্গে রয়েছেন বাবা ও মা। থাকেন বিহারী পট্টিতে। বড় দুই ভাই বয়সে কিশোর হলেও সংসারের হাল তারাই ধরেছেন। দোকানটিতে কোনো ক্রেতা গেলেই যেকোনো পরিমাণের মাংস কিনতে পারেন। তারা ৫০ টাকায়ও গরুর মাংস বিক্রি করেন। কেউ চাইলে যে কোনো অংকের টাকায় কলিজা বা মুরগির মাংসও কিনতে পারেন। শরিফ জানান, যে কেউ যে কোনো পরিমাণে মাংস কিনতে পারেন। এতে তাদের লাভ হয় না। কারণ এসব মাংসে তারা হার দেন না। তবুও গরিব মানুষের জন্য তারা এ ব্যবস্থাটি রেখেছেন।

দ্রুত নিউজ পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করে সি ফাস্ট করে রাখুন
নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

royal city hospital



© All rights reserved © 2019 rupalibarta.com
Developed By Next Barisal