Menu
Menu

তাবলিগের ২৫৫০ বিদেশি সদস্যকে কালো তালিকাভুক্ত করল ভারত

Share on facebook
Share on google
Share on twitter

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া তাবলিগ জামাতের আড়াই হাজারের বেশি বিদেশি সদস্যকে কালো তালিকাভূক্ত করেছে ভারত। তাবলিগের এই বিদেশি সদস্যদের বিরুদ্ধে ভারতে প্রবেশে ১০ বছরের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

দেশটির ইংরেজি দৈনিক টাইমস অফ ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাবলিগ জামাতের ২ হাজার ৫৫০ জন বিদেশি সদস্যকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। কালো তালিকাভূক্ত জামাত সদস্যরা আগামী ১০ বছরের জন্য ভারতে ঢুকতে পারবেন না। গত ২৮ মে জামাতের ৫৪১ জন বিদেশি সদস্যের বিরুদ্ধে ১২ পৃষ্ঠার চার্জশিট দাখিল করে দিল্লি পুলিশের অপরাধ দমন শাখা।

ভারতের করোনাভাইরাস মহামারির শুরুর দিকে গত ১৩ মার্চ দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজ মসজিদে ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করে তাবলিগ জামাত। সংগঠনটির জামাত প্রধান মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দলভি ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন

নিজামুদ্দিন মারকাজের ধর্মীয় ওই অনুষ্ঠানে তাবলিগ জামাতের কমপক্ষে ৯ হাজার সদস্য অংশ নেন; যাদের অধিকাংশই বিদেশি নাগরিক। অনুষ্ঠানের পর অনেকেই দিল্লি থেকে দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েন। দেশটির প্রথম দফার লকডাউনের সময় নিজামুদ্দিন মারকাজ ও তার আশপাশের এলাকায় প্রায় ২ হাজার ৩০০ সদস্য ছিলেন। পরে দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপেদেষ্টা অজিত ডোভাল এই সদস্যদের সরিয়ে দেয়ার নির্দেশ দেন।

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলছে, তাবলিগ জামাতের বেশিরভাগ বিদেশি সদস্যই পর্যটক ভিসায় দিল্লিতে আসেন।পর্যটক সেজে ভারতে ঢুকে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন তারা। অনেকে দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে ধর্মপ্রচার করছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে; যা ভারতীয় ভিসা আইনের লঙ্ঘন।

দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের তাবলিগের ওই সমাবেশে অংশ নেয়াদের মাধ্যমে দেশটিতে দেড় হাজারের বেশি মানুষ করোনা সংক্রমিত হন।

সর্বশেষ