বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:১২ অপরাহ্ন
১৪ মাঘ, ১৪২৭

সংবাদ শিরোনাম:
মায়ের সাথে অভিমান করে উজিরপুরে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা জমকালো আয়োজনে এশিয়ান টেলিভিশনের ৮ম বর্ষপূর্তি পালিত রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর সামসুদ্দীনের দাফন ডিআরইউর ক্যান্টিনে মিলবে সকালের নাস্তা সাংবাদিক পথিক সাহার দশম মৃত্যুবার্ষিকী শুক্রবার আফ্রিকায় বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যা নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে পুলিশ কাউকে ছাড় দেবে না বাংলাদেশে নতুন ভ্যারিয়েন্টে এফএইচডি প্লাস ডিসপ্লের রেডমি ৯ ভোলাসহ ৯ জেলায় নতুন ডিসি গৌরীপুরে কাউন্সিলর প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর সুনামগঞ্জে নদীর তীর কেটে ইট তৈরী করছে আজিজ ব্রিক, হুমকির মুখে কয়েক গ্রাম আর্থিক সহায়তা পেল আগৈলঝাড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই শিক্ষকের পরিবার আগৈলঝাড়ায় মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা এলজিইডির আরবিআরপি প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ মুলাদীতে আ.লীগের মনোনয়ন চান শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান খ্যাত কামরুল আহসান চরফ্যাশনে জন্মবিরতি করণের নামে লাখ লাখ টাকা লোপাট! চরফ্যাশনে দালাদের বিরুদ্ধে জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ শশীভূষণে দলিল লিখক নান্নুর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ পিরোজপুরে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার বড় বোনকে বিয়ে করতে না পেরে ছোট বোনকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা
Dr. Ali Hasan
Dr. Jahidul Islam
ধর্ষণের আগে যৌনশক্তি বর্ধক ওষুধ খেয়েছিল কি-না পরীক্ষা করা হবে

ধর্ষণের আগে যৌনশক্তি বর্ধক ওষুধ খেয়েছিল কি-না পরীক্ষা করা হবে

অপরাধ-দুর্নীতি।।
রাজধানীর কলাবাগানে ‘ও’ লেভেল শিক্ষার্থীকে (১৭) ধর্ষণকালে আসামি ফারদিন ইফতেফার দিহান (১৮) যৌনবর্ধক কোনো ওষুধ ও মাদক সেবন করেছেন কি-না তা পরীক্ষা করা হবে।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কলাবাগান থানার পুলিশ পরিদর্শক আ ফ ম আসাদুজ্জামান পরীক্ষার অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন। ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম ইয়াসমিন আরা আবেদনটি মঞ্জুর করেন।

আবেদনে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেন, কেনানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা আসামি ফারদিন ইফতেফার দিহান ধর্ষণকালে কোনো মাদক সেবন করেছিলেন কি-না তা জানার জন্য তার ডোপ টেস্ট করা প্রয়োজন। এছাড়া তিনি ধর্ষণকালে কোনো যৌনবর্ধক ওষুধ সেবন করেছিলেন কি-না এবং সেবন করলে কোনো ধরনের ওষুধ সেবন করেছিলেন তা দিহানের রক্ত থেকে নমুনা সংগ্রহপূর্বক পরীক্ষা করে বিশেষজ্ঞদের মতামত প্রয়োজন।

কলাবাগান থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক স্বপন কুমার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ৮ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদের আদালতে দিহান দায় স্বীকার করে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এছাড়া ওই দিনই নিহত ছাত্রীর ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। ময়নাতদন্ত শেষে ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, ‘ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। ধর্ষণের ফলে যৌন ও পায়ুপথে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণেই তার মৃত্যু হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডিএনএ প্রোফাইলিংয়ের জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। মৃত্যুর আগে চেতনানাশক কিছু খাওয়ানো হয়েছে কিনা, তার জন্য প্রয়োজনীয় নমুনা সংগ্রহ করে কেমিক্যাল পরীক্ষায় পাঠানো হয়েছে। এসব রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা যাবে।’

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গত ৭ জানুয়ারি সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা মা কর্মস্থলের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে যান। এর এক ঘণ্টা পর তার বাবাও ব্যবসায়িক কাজে বাসা থেকে বের হয়ে যান। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে ওই শিক্ষার্থী তার মাকে ফোন করে কোচিং থেকে পড়ালেখার পেপার্স আনার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়েছিলেন।

এই মামলার একমাত্র আসামি ‘ও’ লেভেল পড়ুয়া শিক্ষার্থী দুপুর আনুমানিক ১টা ১৮ মিনিটে ফোন করে ওই শিক্ষার্থীর মাকে জানান, মেয়েটি তার বাসায় গিয়েছিলেন। হঠাৎ অচেতন হয়ে পড়ায় তাকে আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়।

অফিস থেকে বের হয়ে আনুমানিক দুপুর ১টা ৫২ মিনিটে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর মা হাসপাতালে পৌঁছান। হাসপাতালের কর্মচারীদের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, আসামি তার কলাবাগান ডলফিন গলির বাসায় ডেকে নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন। প্রচুর রক্তক্ষরণের কারণে অচেতন হয়ে পড়লে বিষয়টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য আসামি নিজেই তাকে আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী মারা যান।

দ্রুত নিউজ পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করে সি ফাস্ট করে রাখুন
নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

royal city hospital



© All rights reserved © 2019 rupalibarta.com
Developed By Next Barisal