Menu
Menu

ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে হত্যা, মরদেহ গুম

Share on facebook
Share on google
Share on twitter

অনলাইন ডেস্ক।।
হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে মরদেহ গুম করা হয়েছে। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন একজনকে আটক করেছে পুলিশ। পরে তার দেয়া তথ্যমতে ডোবা থেকে ওই স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সোমবার (১৮ মে) বিকেলে জেলা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবিন্দতে ঘটনার দায় স্বীকার করেছে রিংকু সরকার। তিনি ছিলারাই গ্রামের হগেন্দ্র সরকারের ছেলে।

বানিয়াচং থানার ওসি এমরান হোসেন জানান, ১৫ মে সন্ধ্যায় উপজেলার ছিলারাই গ্রামের বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় ওই স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় প্রতিবেশী রিংকুর আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় বিষয়টি ইউপি সদস্য আবুল কালামকে জানান নিখোঁজ ছাত্রীর বাবা। পরে ইউপি সদস্য বিষয়টি পুলিশকে জানালে রিংকুকে আটক করা হয়।

একপর্যায়ে বিষয়টি স্বীকার করে রিংকু জানান, ওই স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে গ্রামের ধানের খলায় নিয়ে যান রিংকু। সেখানে তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে গুমের উদ্দেশে মরদেহ ডোবায় ফেলে দেন।

ওসি আরো জানান, স্কুলছাত্রীর মরদেহ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সোমবার এ ঘটনায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন ভুক্তভোগীর বাবা। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব বানিয়াচং থানার এসআই আব্দুস সাত্তারকে দেয়া হয়েছে। এছাড়া আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সর্বশেষ