Menu
Menu

মসজিদের ইমামকে জুতার মালা পরানো সেই আলোচিত চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৩

Share on facebook
Share on google
Share on twitter

রূপালী ডেস্ক।।
বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে মাদ্রাসা শিক্ষককে জুতার মালা পরিয়ে পৈশাচিক নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত ইউনিয়ন চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জেলা ডিবি পুলিশের একটি টিম তাকে বৃহস্পতিবার (০৪ জুন) রাতে পার্শ্ববর্তী মুলাদী উপজেলা থেকে গ্রেপ্তার করে। একই সাথে চেয়ারম্যান মোস্তফা রাঢ়ীর ক্যাডার হিসেবে পরিচিত সাবেক মেম্বর সাত্তার সিকদারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মুলাদী থানা পুলিশের একটি সূত্র তথ্য নিশ্চিত করে।

সূত্রটি জানায়- গ্রেপ্তার আতঙ্কে চেয়ারম্যান ও সাবেক মেম্বর সাত্তার সিকদার মুলাদী উপজেলার একটি বাসায় আত্মপোন করে ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের একটি টিম সেখানে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে হানা দেয়। একপর্যায়ে তাদের গ্রেপ্তারে সফলতা আসলে নিয়ে যাওয়া হয় মুলাদী থানায়। পরে সেখান থেকে রাতে তাদের মেহেন্দিগঞ্জে নিয়ে যায় পুলিশ।

উল্লেখ্য, মেহেন্দিগঞ্জে দড়িচর খাজুরিয়া ইউনিয়নের স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে শহীদুল ইসলাম আলাউদ্দিন নামের শিক্ষককে সালিশ বিচারের মুখোমুখি করেন চেয়ারম্যান মোস্তফা রাঢী। এতে দোষী সাব্যস্ত করে ৫০ হাজার টাকা জরিমনা করা হলে শিক্ষক তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তখন চেয়ারম্যান ও তার ক্যাডাররা শিক্ষকের গলায় জুতার মালা পরিয়ে ভিডিও ধারণ শাস্তি দেয়। এবং তা সকলের উপস্থিতিতে কার্যকর করে। সেই নির্যাতনের একটি ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পেলে শুরু হয় তোলপাড়।

শিক্ষক নির্যাতনে জড়িতদের পুলিশ রাতেই গ্রেপ্তার অভিযান শুরু করে পরদিন ভোরে চেয়ারম্যানের এক সহযোগী বজলু আকনকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু চেয়ারম্যানসহ সহযোগী পালিয়ে যাওয়ায় গ্রেপ্তার করা সম্ভব হচ্ছি লা।

সূত্র জানায়- গ্রেপ্তারে নামার খবরে রাতেই চেয়ারম্যান ও সাবেক মেম্বর এলাকায় ছেড়ে নিরাপদ স্থানে চলে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে তারা নৌপথে পার্শ্ববর্তী উপজেলা মুলাদীতে চলে আসে। এবং সেখানে এক স্বজনের বাসায় আত্মগোপন করে।

জেলা ডিবি পুলিশ জানায়- গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় চেয়ারম্যান এক সহযোগীকে নিয়ে মুলাদীতে স্বজনের বাসায় নিজেকে আত্মগোপন করে আছেন। সন্ধ্যার দিকে সেখানে অভিযান চালিয়ে সহযোগী সাবেক মেম্বর সাত্তার সিকদারসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে মেহেন্দিগঞ্জ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, চেয়ারম্যান ও সাবেক মেম্বরকে হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবদ চলছে। শিক্ষক আলাউদ্দিনের মামলায় শুক্রবার তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হবে।’

সর্বশেষ