রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:২২ পূর্বাহ্ন
১৫ ফাল্গুন, ১৪২৭

সংবাদ শিরোনাম:
ভারতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা সেনাবিরোধী বক্তব্যের পর মিয়ানমারের জাতিসংঘ দূত বরখাস্ত মানুষের ডিজিটাল সুরক্ষার জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন: তথ্যমন্ত্রী ৩০ মার্চ খুলছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বরিশালে গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা মতলব উত্তরে স্বামীর সাথে অভিমান করে স্ত্রীর আত্মহত্যা গৌরীপুরে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সম্মেলন অনুষ্ঠিত যাক, খেলাটা বোঝে এখানে এমন একজনকে পাওয়া গেল : রোহিত মিয়ানমারে বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে আরও এক নারী নিহত মসজিদে আজান বন্ধ করে দিল ইসরায়েল! উন্নয়নশীল দেশের চূড়ান্ত সুপারিশ লাভ করেছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী ছাতক-দোয়ারাবাজার সড়কে পাথরবোঝাই ট্রাকের চাপে ভেঙে গেল বেইলি ব্রিজ প্রেম করায় কিশোরীকে গলা কেটে হত্যা করল মা-ভাই মাদক ব্যবসায়ীকেই বিয়ে করবেন এমা বরই বড়ই গুণের কীর্তনখোলা নদীতে ট্রলার ডুবি কঙ্গনার বিরুদ্ধে বক্তব্য দিতে মুম্বাইয়ে হৃতিক নেপাল থেকে রশিদ খানের বিকল্প খুঁজে নিলো লাহোর রাজধানীতে শিশুর রহস্যজনক মৃত্যু, যৌনাঙ্গে আঘাতের চিহ্ন মা‌য়ের পেছ‌ন পেছন সড়ক পার হ‌তেই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট ফা‌হিম
Dr. Ali Hasan
Dr. Jahidul Islam

মানসিক চাপ দেহের জন্য কতটা ক্ষতিকর

রূপালী স্বাস্থ্য:
প্রতিটা মানুষই কাজের মধ্যে মানসিক চাপ অনুভব করে। ছোট থেকে বড় সব বয়সের মানুষের মধ্যে এই প্রবণতা দেখা যায়। শুধু যে বড়রাই মানসিক চাপ অনুভব করে তা ঠিক নয়। বিশেষ করে বাবা-মার অবহেলা থেকে শিশুরা মানসিক চাপ ভোগ করে। ছোটদের পড়াশুনার ক্ষেত্রে এটি অনুভব করা যায়। আর বড়দের ক্ষেত্রে চাকরি-বাকরি, পারিবারিক সমস্যা, ঝগড়া-বিবাদ থেকে বিভিন্ন মানসিক চাপ সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন গবেষনার ফলে প্রমাণিত হয়েছে, মানসিক চাপ হৃদযন্ত্রের ক্ষতি সাধন করে। কিছু মানসিক চাপ বা উদ্বেগ মানুষের মধ্যে দীর্ঘমেয়াদি সমস্যারও জন্ম দেয়।

যেমন-
ঘুমের ব্যাঘাত বা বিরক্তি বা খিটখিটে মেজাজ
কর্মদক্ষতা কমে যাওয়া বা খাদ্যের প্রতি অনীহা
অ্যালকোহল, তামাক বা মাদকদ্রব্যে আসক্তি বেড়ে যায়।

হয়তো আপনি কখনোই আপনার চাকরিদাতাকে শারীরিক আঘাত করতে চাইবেন না, কিন্তু মানুষ এ পরিস্থিতিতে এমনটাই করে বসে। এ রকম পরিস্থিতিতে দেহে যেসব পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয়-
হৃৎস্পন্দন বৃদ্ধি বা দ্রুত শ্বাস-প্রশ্বাস
মাথা ঘোরা বা মাথা ব্যথা
বমি বমি ভাব বা পেশিতে টান অনুভব করা।

এ পরিবর্তনগুলোর মূল কারণ কর্টিসোল। কর্টিসোল এক প্রকার হরমোন, যা দেহে গ্লুকোজ নিঃসরণ ঘটায়। এই গ্লুকোজ পেশিতে শক্তি সরবরাহ করে এবং হুমকিকে শারীরিকভাবে আঘাত করতে প্ররোচিত করে। সম্প্রতি একটি স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইটে দুশ্চিন্তা থেকে মুক্ত থাকার কিছু উপায় জানানো হয়। যেগুলো মানসিক চাপ কমিয়ে হৃদয়ও সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পেতে-
১. পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন
২. বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটান
৩. নির্ভুল হওয়ার চিন্তা বাদ দিন
৪. ক্ষোভ ঝেড়ে ফেলুন
৫. প্রাণ খুলে হাসুন
৬. মদ্যপান থেকে বিরত থাকুন
৭. ক্যাফেইন নেওয়া কমিয়ে দিন।

ডা: কে.এম. জাহিদুল ইসলাম
এমবিবিএস(ঢাকা), বিসিএস (স্বাস্থ্য)
এমএস (অর্থোপেডিক সার্জারী) অর্থোপেডিক বিশেষজ্ঞ ও সার্জন
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (পিজি হাসপাতাল) ঢাকা।

দ্রুত নিউজ পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করে সি ফাস্ট করে রাখুন
নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

royal city hospital



© All rights reserved © 2019 rupalibarta.com
Developed By Next Barisal