Menu
Menu

১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে অ্যান্থনি ফাউচি

Share on facebook
Share on google
Share on twitter

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।
১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজ’-এর এই পরিচালকের দেহে করোনার কোনও সংক্রমণ ধরা পড়েনি। তবে তিনি হোয়াইট হাউসের আক্রান্ত এক ব্যক্তির মৃদু সংস্পর্শে এসেছিলেন। এজন্য স্বেচ্ছায় সাবধানতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। অ্যান্থনি ফাউচি নিজেই সংবাদমাধ্যম সিএনএন-কে এ তথ্য জানিয়েছেন। রবিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যমটি।

করোনা মোকাবিলায় ট্রাম্প প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছিলেন রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচি। করোনা নিয়ে হোয়াইট হাউসে ট্রাফের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে উপস্থিত থাকতেন তিনি।

এদিকে করোনাভাইরাসের মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্পের ব্যক্তিগত সহকারী। তবে ওই কর্মকর্তা গত কয়েক সপ্তাহে ইভাঙ্কার কাছাকাছি যাননি বলে জানিয়েছে সিএনএন। এ নিয়ে হোয়াইট হাউসের অন্তত তিন কর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। মূলত এরপরই কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন অ্যান্থনি ফাউচি।

গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একজন ব্যক্তিগত কর্মীর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে হোয়াইট হাউস। সেখানকার মেডিক্যাল ইউনিট জানায়, ট্রাম্পের ব্যক্তিগত কর্মীর দায়িত্বে থাকা মার্কিন সেনাবাহিনীর এক সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরই প্রতিদিনই ট্রাম্পের করোনাভাইরাস পরীক্ষার সিদ্ধান্ত হয়। একদিনের মাথায় শুক্রবার পেন্সের প্রেস সেক্রেটারি কেটি মিলারের আক্রান্ত হওয়ার খবর জানা যায়। শনিবার ইভাঙ্কার সহকারীরও আক্রান্ত হওয়ার তথ্য জানা গেলো। এর মধ্যেই রবিবার ড. অ্যান্থনি ফাউচি-র সতর্কতামূলক কোয়ারেন্টিনের খবর দিলো সিএনএন।

সর্বশেষ